গুগল নলেজ প্যানেল দিয়ে ফেসবুক ব্লু ভেরিফাইড করে নিন

গুগল নলেজ প্যানেল দিয়ে ফেসবুক ব্লু ভেরিফাইড করে নিন

এই মুহূর্তে সবচেয়ে ভাইরাল বিষয়গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে গুগল নলেজ প্যানেল৷ আজকাল সব পোলাপাইন তাদের ফেসবুক আইডি ব্লু ভেরিফাই করে ফেলছে গুগল নলেজ প্যানেল দিয়ে। এর পেছনে রয়েছে গুগল নলেজ প্যানেলর অবদান। ইয়াফ্লিক্স এর আজকের আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব গুগল নলেজ প্যানেল কী? কিভাবে গুগল নলেজ প্যানেল পাবেন এবং ক্লেইম করে নিবেন। আজকাল ফেসবুকে কিছু ব্যবসায়ী আছেন যারা আপনাকে কয়েক হাজার টাকায় গুগল নলেজ প্যানেল দিবেন। তাদের থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকুন তবে আমাদের পরিচিত লোকের মাধ্যমে মাত্র ৫ হাজার টাকা ব্যয়ের মাধ্যমে আপনি নিম্নোক্ত সার্ভিস গুলো পাবেনঃ

১। গুগল নলেজ প্যানেল

বিজ্ঞাপন

২। স্পটিফাই ব্লু ভেরিফাইড একাউন্ট

৩। ডিজার/এমাজন সহ অন্যান্য বড় বড় মিউজিক্যাল প্লাটফর্মে আপনাদ্রর মউজিক রিলিজ করার সুবিধা

৪। ইউটিউব আর্টিস্ট একাউন্ট আজ আমি

গুগল নলেজ প্যানেল অর্ডার লিংকঃ Add an artist request

এখানে যাওয়ার পর আপনি ৩টি  ফর্ম দেখতে পাবেন আপনি নিচের স্ক্রিনশট এর মতো add an artist request এ যাবেন সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য দিবেন আর কোনো প্রয়োজন এ কল দিতে পারেন।

 

আপনাদের জানাবো কিভাবে নিজের চেষ্টায় গুগল নলেজ পাবেন। তো চলুন আর কিছু না করে শুরু করা যাক।

গুগল নলেজ প্যানেল কি?

গুগল নলেজ প্যানেল হল তথ্য এর বাক্স। আপনি যখন কোনো বিখ্যাত ব্যক্তির নাম লিখে গুগলে সার্চ দিবেন, প্রথমে একটি ছোট বাক্স সেই ব্যক্তির সম্পর্কে অনেক বিস্তারিত দেয়। এটিই হলো গুগল নলেজ প্যানেল।

 

গুগল নলেজ প্যানেল প্যানেল শুধুমাত্র সেলিব্রিটিদের জন্য নয়। যেকোন বই, স্থান, দেশ এবং আরও অনেক বিষয়ে একটি গুগল নলেজ প্যানেল রয়েছে। আপনি যদি গুগল নলেজ প্যানেল পান, তাহলে গুগলের দৃষ্টিতে আপনি একজন উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি। আর যদি আপনার নামে গুগল নলেজ গ্রাফ থাকে, তাহলে আপনি সহজেই ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রামে অ্যাকাউন্ট ব্লু ভেরিফাই করে নিতে পারবেন। এছাড়াও, যখন কেউ আপনার নাম লিখে গুগলে সার্চ করে, আপনার ছবি, নাম এবং আপনার সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ সেই ব্যক্তিকে দেখানো হবে সারচ রেজাল্ট হিসাবে। মজার ব্যপার, তাই নয় কি? উম, অবশ্যই, হ্যাঁ, আমি এটা জানি, কেন এটা আগে থেকেই জানা কিছু। ভাই এর জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। কোন সমস্যা নেই, আমি আছি। আমি এখন আপনাকে ধাপে ধাপে বলব কিভাবে আপনার নিজের নামে গুগল নলেজ প্যানেল পাবেন। কিভাবে গুগল নলেজ প্যানেল পাবেন? আপনি যদি মনে করেন যে আপনাকে গুগল নলেজ পেতে একটি ফর্ম পূরণ করতে হবে, আপনাকে নিবন্ধন করতে হবে বা NID কার্ড পেতে হবে, গুগল দ্বারা যাচাই করা পাসপোর্ট। তাই ভুল ভাবছেন। মজার ব্যাপার হল গুগল নলেজ প্যানেল স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরি হয়। গুগল এর প্রকৌশলী বা ইঞ্জিনিয়াররা আপনাকে তাদের নিজস্ব জ্ঞান প্যানেল দিতে সক্ষম হবে না। আসলে, গুগল ইন্টারনেট এর সবকিছু থেকে ডেটা সংগ্রহ করে। যদি গুগল-এর কাছে কোনো ব্যক্তির সম্পর্কে অনেক তথ্য থাকে এবং কেউ সেই ব্যক্তির নাম লিখে সার্চ করে, তাহলে গুগল সেই ডেটা সংগ্রহ করে এবং নলেজ প্যানেল হিসেবে দেখায়। যাই হোক, আমি এখন আপনাদের বলব কিভাবে নলেজ প্যানেল পেতে হয়। এর জন্য আপনাকে সমস্ত মিউজিক স্ট্রিম প্ল্যাটফর্মে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। যেমন: Spotify, Amazon Music, Deser, YouTube Music, এই সাইটগুলোতে যান এবং একটি শিল্পীর অ্যাকাউন্ট খুলুন। আপনি যদি স্পটিফাই অ্যাকাউন্টটি যাচাই করতে পারেন তবে এটি খুব সহজ। একটি অ্যাকাউন্ট খোলার পরে, পরবর্তী পদক্ষেপটি হল মিউজিক তৈরি করা এবং আনুষ্ঠানিকভাবে সেই সমস্ত সং বা মিউজিক প্ল্যাটফর্মে আপনার মিউজিক প্রকাশ করা৷ চিন্তা করবেন না, আপনাকে শুধু সঙ্গীত তৈরি করতে হবে এবং আপলোড করতে হবে। আর মজার ব্যাপার হল আজকাল আপনি মোবাইল অ্যাপ দিয়ে সহজেই এই ধরনের মিউজিক তৈরি করতে পারবেন। তাই টেনশনের কোনো কারণ নেই। এবং হ্যাঁ, আপনার সমস্ত সামাজিক মিডিয়া সাইট এবং সর্বত্র একই নাম দিন। এবং সমস্ত প্ল্যাটফর্মে ইউজাদের নাম একই রাখার চেষ্টা করুন। তারপর উইকিপিডিয়া আইএমডিবি সহ এই সমস্ত বিকল্প সাইটে যান এবং ইংরেজিতে আপনার নিজের সম্পর্কে লিখুন। আপনি মিউজিশিয়ানও সেটা দাবি করবেন। ব্যাস, আর কিছু করার নেই। এখন শুধু YouTube সহ সমস্ত মিউজিক স্ট্রিম সাইটগুলিতে সঙ্গীত প্রকাশ করতে থাকুন৷ কিছু দিনের মধ্যে আপনি আপনার নামে গুগল নলেজ প্যানেল দেখতে পাবেন। Google নলেজ প্যানেল পেতে কিছু সময় লাগতে পারে, কিছু ক্ষেত্রে 3/4 মাস এবং কিছু ক্ষেত্রে 15 দিন। কিছু সেরা মিউজিক স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম এখানে সেরা কিছু মিউজিক স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মের নাম দেওয়া হল। আপনি এখানে গিয়ে একটি শিল্পীর অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন – Spotify ডিজার অ্যাপল মিউজিক আমাজন মিউজিক ইউটিউব গান জোয়ার শেষ কথা এটা আমাদের আজকের আর্টিকেল, আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। আপনি যদি উপরে দেওয়া কৌশলগুলি অনুসরণ করেন, আপনি অবশ্যই Google নলেজ প্যানেল পাবেন। এই বিষয়ে আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা সাহায্য চাইলে আমাদের ফেসবুক পেইজে মেসেজ করুন। আমরা সাহায্য করার চেষ্টা করব। আর্টিকেল শেয়ার করুন এবং প্রতিদিন আমাদের ওয়েবসাইট দেখুন। সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

2 thoughts on “গুগল নলেজ প্যানেল দিয়ে ফেসবুক ব্লু ভেরিফাইড করে নিন

    1. সরাসরি ফেসবুক ব্লু ভেরিফাই করতে ২০ হাজার টাকা লাগবে।
      এটা শুনার পর অনেকেই নেয়না সার্ভিস।
      তাই আপনাকে বলি আমরা আপনাকে ব্লু ভেরিফাইড এর জন্যে সকল রিকোয়ার্মেন্টস করে দিবো আপনি চাইলে ব্লু পর্যন্ত হেল্প করবো কিন্তু গ্যারান্টি দিবোনা।
      এভাবে হলে জানায়েন ৫০০০ টাকা লাগবে।

Comment Here